1. altafbabu1@gmail.com : news :
  2. altafbabu1@gmail.com : Satkhira Times : Satkhira Times
September 27, 2021, 12:34 pm
Title :
সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা কলারোয়ার বেত্রবতী হাইস্কুলের কৃতি ছাত্রী জ্যোতির আইনজীবি স্বীকৃতি লাভে অভিনন্দন কলারোয়ায় সোনারবাংলা কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাকলারোয়ায় সোনারবাংলা কলেজ পরিচালনা কমিটির সভা প্রধানমন্ত্রী’র জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে পৌর শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের প্রস্তুতি সভা বিএনপির খালি কলসি বেশি বাজছে -তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বল্লী মোঃ মুজিবর রহমান মাধ্য. বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কে প্রাক্তন ছাত্রদের ফুলেল শুভেচ্ছা সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারের প্রেস ব্রিফিং : ভারতে পালাতে গিয়ে আটক পূর্নিমা হত্যার আসামি পার্থ মন্ডল যারা স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না তারা ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে দেশে এবং বিদেশে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করছে-প্রধানমন্ত্রী সাতক্ষীরার নবাগত আইনজীবী সাইদ-বিন্তুকে ফুলের শুভেচ্ছা টাটা ক্রপকেয়ার কোম্পানীর কৃষক সমাবেশ অনুষ্ঠিত

আশাশুনির ফকরাবাদ প্রাইমারী স্কুলের সামনে বিদ্যুৎ লাইন ঝুঁকিতে, যে কোন সময় দূর্ঘটনার আশঙ্কা

  • আপডেট সময় Friday, September 3, 2021

এমএম সাহেব আলী, আশাশুনি : আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়নে ফকরাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে মরা গাছ ও বিদ্যুৎ লাইনের তার চরম ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। যে কোন সময় পথচারী ও স্কুলের শিক্ষার্থীদের উপর পড়ে দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা বিরাজ করছে।

আশাশুনি টু বড়দল সড়কের উপর বিদ্যালয়ের মেইন গেট ও সীমানা প্রাচীরের উপর দিয়ে চালু আছে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির হাই ভোল্টেজের বৈদ্যুতিক লাইন।

বিদ্যুৎ লাইনের তারগুলো সড়কের পাশের দীর্ঘদিন মরে যাওয়া শুকনো চটকা গাছের বড় বড় ডালসহ তিনটি মরা চটকা গাছ তারের উপর হেলে আছে। ঝড়-বৃষ্টি বা বাতাসের চাপে কিংবা স্বাভাবিক ভাবে যে কোনো সময় গাছ বা গাছের বড় ডাল পড়ে গেলে ঘটতে পারে মারাত্মক বৈদ্যুতিক দূর্ঘটনা। স্কুলের দুইশত ফুট দূরে রয়েছে পল্লীবিদ্যুতের ৩৩ কেভি উপকেন্দ্র।

সামনে স্কুল খুললে স্কুলের শিক্ষক, কোমলমতি ছাত্রছাত্রীরা থাকবে সেখানে। এছাড়া প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ ও অসংখ্য যানবাহন চলাচল করে এই রাস্তা দিয়ে। তাদেরকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে।

এব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিতা মন্ডল জানান, হয়তো খুব তাড়াতাড়ি বিদ্যালয় পড়াশোনার জন্য সরকার খুলে দেবে। তার আগেই এই ঝুঁকিপূর্ণ মরা গাছের ডাল কর্তন না করলে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। আমরা আতঙ্কে আছি। স্কুলের শিক্ষার্থীদের অভিভাবক, স্থানীয় সচেতন সাধারণ জনগণ ও পথচারীরা সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2021 satkhiratimes24.com
Theme Customized By BreakingNews