1. altafbabu1@gmail.com : news :
  2. altafbabu1@gmail.com : Satkhira Times : Satkhira Times
October 6, 2022, 2:31 pm
Title :
কলারোয়ার কৃতি সন্তান সাফ মহিলা চ্যাম্পিয়নশীপের খেলোয়াড় মাছুরা কে সংবর্ধনা দেবহাটায় কার্পেটিং রাস্তা ও স্কুলের নির্মান কাজ উদ্বোধণ করলেন এমপি রুহুল হক ধর্মকে ব্যবহার করে কেউ যাতে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে না পারে সেজন্য সকলকে সজাগ থাকার আহ্বান রাষ্ট্রপতির দেখা হলো তবে কথা হলো না… আগামীকাল সংবাদ সম্মেলন করবেন প্রধানমন্ত্রী আশাশুনির কুল্যায় নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা বিশ্ব শিক্ষক দিবসে সকল শিক্ষকের প্রতি তথ্যমন্ত্রীর শ্রদ্ধা তালায় প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দুর্গা পূজা ইছামতিতে বাংলাদেশ-ভারত সীমারেখায় প্রতিমা বিসর্জন, দু’পাড়ে হাজার হাজার ভক্তের ভিড় কাঠমিস্ত্রী সাইফুল ইসলামের মৃত্যুতে সদর উপজেলা ফার্ণিচার ও রং শ্রমিক ইউনিয়নের শোক প্রকাশ

ভারতের ঘোজাডাঙায় চাঁদাবাজির প্রতিবাদে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে মানববন্ধন ও কর্মবিরতি

  • আপডেট সময় Saturday, January 29, 2022

স্টাফ রিপোর্টার : আমদানি পন্যবাহী ভারতীয় ট্রাকগুলিকে বাংলাদেশে প্রবেশের সিরিয়ালের নামে ঘোজাডাঙা বন্দরে চাঁদাবাজির অভিযোগে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে শুরু হয়েছে বিভিন্ন প্রতিবাদ কর্মসূচী।

শনিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মানববন্ধন ও কর্মবিরতির মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা অবিলম্বে এই চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন। এই দাবি না মানা হলে বৃহত্তর কর্মসূচী দিয়ে দুই দেশের আমদানি রফতানি বন্ধ করে দেওয়ার মত ঘোষনা দিতে পারেন তারা।

শনিবারের মানববন্ধন ও কর্মবিরতি কর্মসূচীতে ভোমরা সিএ্যান্ডএফ এসোসিয়েশনের সদস্য ও আমদানি রফতানিকারকরা অংশ নিয়ে অভিযোগ করে বলেন, প্রতিদিন গড়ে ৩০০ ভারতীয় পন্যবাহী গাড়ি বাংলাদেশে প্রবেশ করে।

তারা অভিযোগ করে বলেন, ভোমরার বিপরীতে ভারতের ঘোজাডাঙা স্থলবন্দরের বেসরকারি পার্কিং ইয়ার্ডে সিরিয়ালের নামে বিভিন্ন পন্য বিবেচনায় গাড়িপ্রতি ২৫ হাজার থেকে ৩০ হাজার টাকা চাঁদা না দিলে তাদেরকে ৩০ থেকে ৪৫ দিন পর্যন্ত বসিয়ে রাখা হয়।

তারা বলেন, যারা এই চাঁদা পরিশোধ করে তারা অল্প সময়ের মধ্যেই বাংলাদেশের ভোমরা বন্দরে আসতে পারে। ব্যবসায়ী নেতারা আরও বলেন, এই চাঁদাবাজি এবং সময়ক্ষেপনের কারনে বাংলাদেশে আমদানিকৃত পন্যের মূল্য অপেক্ষাকৃত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

এছাড়া পচনশীল পন্যও ক্ষতির মুখে পড়ছে। এতে ব্যবসায়ী মহল সহ ক্রেতাসাধারন মারাত্মক ক্ষতির শিকার হচ্ছেন। এই ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পেতে অনেক আমদানিকারক ঘোজাডাঙা বন্দর ত্যাগ করে ভারতের অন্য কোন বন্দর দিয়ে বাংলাদেশের প্রবেশের চেষ্টা করছে। এর ফলে ভোমরা স্থল বন্দরে রাজস্ব ঘাটতিও দেখা দিচ্ছে।

ভোমরা সিএ্যান্ডএফ এসোসিয়েশনের আহবায়ক এজাজ আহমেদ স্বপনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন রামকৃষ্ণ চক্রবর্তী, মোঃ মিজানুর রহমান, দীপংকর ঘোষ, মোঃ আমির হামজা, পরিতোষ ঘোষ, শহীদুল ইসলাম প্রমুখ ব্যবসায়ী ও কর্মচারী। তারা বলেন, চাঁদাবাজি বন্ধ না হলে রোববার ৩ ঘন্টা, সোমবার ৪ ঘন্টা এবং মঙ্গলবার থেকে লাগাতার কর্মবিরতি পালন করে ভোমরা ঘোজাডাঙা বন্দরে আমদানি রফতানি স্থবির করে দেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2021 satkhiratimes24.com
Theme Customized By BreakingNews