1. altafbabu1@gmail.com : news :
  2. altafbabu1@gmail.com : Satkhira Times : Satkhira Times
May 12, 2021, 7:52 pm
Title :
মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজের সার্বিক গড় অগ্রগতি ৬৩ দশমিক ২৬ শতাংশ -সেতুমন্ত্রী সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের উদ্যোগে বিভিন্ন সংগঠনের মাঝে আর্থিক সহায়তার চেক বিতরণ সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে অসহায় মানুষের মাঝে সরকারি ত্রাণ বিতরণ রাতের আঁধারে বাড়ি বাড়ি খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগ মাটিরাঙ্গায় সেনাবাহিনীর ঈদ সহায়তা পেল শতাধিক পরিবার সাতক্ষীরায় ১২০ পরিবারের মাঝে মুরগি বিতরণ করলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বাবু খান কলারোয়ায় আনসার ভিডিপি সদস্যদের মাঝে ঈদ শুভেচ্ছা ও মাস্ক বিতরণ বিকাশে ভুল নাম্বারে চলে যাওয়া টাকা উদ্ধার করে ফেরত দিলেন সাতক্ষীরা থানা পুলিশ দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র-তৎপরতা বাড়াতেই খালেদা জিয়াকে বিদেশ নিতে চেয়েছিল বিএনপি —তথ্যমন্ত্রী সাতক্ষীরায় শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ পৌর ৯ নং ওয়ার্ডের ইফতার মাহফিল

মসজিদে জমি দান করে কুঁড়ে ঘরের বাসিন্দা কাছেদ আলীকে ঘর দিলেন আলফা

  • আপডেট সময় Monday, April 19, 2021

দেবহাটা প্রতিনিধি : স্ত্রীসহ তাকে মিলিয়ে দুজনের সংসার। সময়ের বিবর্তনে বয়সের ভারে নুঁইয়ে পড়ছেন দুজনেই। নেই বসবাসের মতো উপযোগী ভালো ঘর, অথচ আত্মতৃপ্তির জন্য বসবাসরত কুঁড়ে ঘরের পাশের জমিটুকু দান করেছেন নব-নির্মিত মসজিদে।

এখন স্ত্রীকে নিয়ে বাশেঁর চাঁচের বেড়া ও টিনের ছাউনি দেয়া জরাজীর্ন ঘরটিতে বসবাস করছেন কাছেদ আলী। দারিদ্রতার টানাপোড়েনে স্ত্রীকে নিয়ে কোন রকমে দিন পার করে আসা গরীব কাছেদ আলী শেষ সম্বলমাত্র জমিটুকুও মসজিদে দান করে মানুষের সামনে নিজের উদার মনের পরিচয় তুলে ধরেছেন।

তিনি দেবহাটা উপজেলার দক্ষিন পারুলিয়া পূর্বপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। সম্প্রতি কাছেদ আলীর দানকৃত জমিতে নির্মিত হয়েছে দৃষ্টিনন্দন মদিনা মসজিদ। এবার নির্মিত সেই মসজিদের পাশেই উদার মনের কাছেদ আলী দম্পত্তিকে বসবাসের জন্য পাকা ঘর নির্মান করে দেয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ সদস্য আলহাজ্ব আল ফেরদাউস আলফা।

সদ্যনির্মিত মদিনা মসজিদের উদ্বোধনে এসে নিজ চোখে কুঁড়ে ঘরের বাসিন্দা কাছেদ আলীর দুঃখ, দূর্দশা দেখে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন আলফা। প্রতিশ্রুতি দেন মসজিদের পাশেই কাছেদ আলীকে নির্মান করে দিবেন পাকা ঘর। সে মোতাবেক সোমবার সকাল থেকে মদিনা মসজিদের পশ্চিম পাশে শুরু হয়েছে কাছেদ আলীর জন্য পাকা ঘর নির্মানের কাজ।

বৃদ্ধ কাছেদ আলী বলেন, ‘পাঁকা ঘরে বাস করতে পারবো, এমনটি স্বপ্নে বা জীবদ্দশায় কখনো ভাবিনি। শেষ সম্বল জমিটুকু মসজিদে দান করার পর যখন অনেকেই আমাকে বোকা ও নিঃস্ব বলেছিল তখনো আমি মনোবল হারাইনি। কিছু না থাকলেও কুঁড়ে ঘরে বাস করে আমি ও আমার স্ত্রী যে আত্মতৃপ্তি পেয়েছি সেটা অন্য কেউ উপলব্ধি করতে পারবেনা।

সবসময় মহান সৃষ্টিকর্তার ওপর ভরসা রেখেছি এবং তার কাছেই বিপদে আশ্রয় চেয়েছি। তবে আমাকে ঘর নির্মান করে দেয়ায় আমি অত্যন্ত খুশি হয়েছি। আশাকরি মসজিদের পাশেই স্ত্রীকে নিয়ে জীবনের বাকি সময়টা একটু ভালোভাবে কাটাতে পারবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2021 satkhiratimes24.com
Theme Customized By BreakingNews