1. altafbabu1@gmail.com : news :
  2. altafbabu1@gmail.com : Satkhira Times : Satkhira Times
May 25, 2024, 2:17 am
Title :
২ দিনব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তন ও অধিপরামর্শ বিষয়ে দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ ব্রহ্মরাজপুরে ৮দলীয় নক-আউট ক্রিকেট টুর্নামেন্ট’র উদ্বাধন কলারোয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ২৯ মে : প্রচার-প্রচারণায় মুখরিত জনপদ কালিগঞ্জে মাদ্রাসার সভাপতির অনিয়মের প্রতিবাদে ১২ সদস্যের কমিটির ৭ জনের পদত্যাগ ভোমরায় মটর সাইকেল প্রতিকের নির্বাচনী জনসভা ঘোড়া প্রতিকে বিভিন্ন স্থানে চেয়ারম্যান প্রার্থী এ্যাড. সোহাগের গণ সংযোগ ও পথসভা সাতক্ষীরায় জেন্ডার ভিত্তিক বৈষম্য দূরীকরণে স্টেক হোল্ডারদের সাথে অবহিতকরণ সভা কৃমি শিশুদের মেধা বিকাশ ও স্মৃতিশক্তি কমিয়ে দেয় -তালুকদার আব্দুল খালেক আলিপুর এলাকাতে মোটরযানের উপর মোবাইল কোর্ট   সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ এর চিকিৎসার খোঁজখবর  নিলেন  জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম

মুম্বাইয়ের ফ্ল্যাট থেকে বাংলাদেশি তরুণীর গলিত লাশ উদ্ধার

  • আপডেট সময় Friday, December 18, 2020

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের মুম্বাইয়ের একটি ফ্ল্যাট থেকে বাংলাদেশি তরুণীর গলিত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে দেশটির পুলিশ। তাঁকে হত্যার অভিযোগে বাংলাদেশি এক তরুণকে গ্রেপ্তারও করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে নাভি মুম্বাইয়ে। ওই তরুণ ও তরুণী লিভ টুগেদার করছিল। ভারতীয় গণমাধ্যম অনলাইন মুম্বাই মিররের খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে আরো বলা হয়েছে, নিহত বাংলাদেশি তরুণীর নাম লিপি সাগর শেখ ওরফে রিনা শেখ। তবে তার প্রেমিক তরুণের নাম জানা যায়নি। তারা দুজন নাভি মুম্বাই এলাকায় একত্রে বসবাস করছিলেন। দুজনেই ছিলেন অবৈধ অভিবাসী। কিন্তু অন্য পুরুষের সঙ্গে রিনার সম্পর্ক থাকার সন্দেহে প্রেমিক তাকে প্রায় তিন সপ্তাহ আগে হত্যা করে এবং লাশ বাসার ভেতর রেখে বাইরে থেকে তালা আটকে দেয়।

রিনা ও অন্য দুই বাংলাদেশি নারী একই বাসায় বসবাস করছিলেন। কিন্তু করোনাভাইরাস সংকটে তারা কর্মহীন হয়ে পড়েন। এ অবস্থায় অন্য দুই নারী বাংলাদেশে চলে আসেন। তারা নাভি মুম্বাইয়ে সেবা খাতে কাজ করতেন। তারা দেশে ফিরে আসার পর রিনা ও তার প্রেমিক শুরু করেন লিভ টুগেদার। একই বাসায়, একই ছাদের নিচে বিবাহ ছাড়াই বসবাস শুরু করেন রিনা ও তার প্রেমিক।

এক পর্যায়ে বাংলাদেশি ওই দুই নারী আবারও মুম্বাই ফিরে যান নতুন কাজ পাওয়ার আশায়। তারা বাসায় ফিরেই দেখতে পান, দরজার বাইরে থেকে তালা দেয়া। রিনার ফোন তখন বন্ধ ছিল। এ অবস্থায় তারা যোগাযোগ করেন বাড়ির মালিকের সঙ্গে। তার কাছে চাবি চান। কিন্তু ওই বাসার চাবি বাড়িওয়ালার কাছে ছিল না। এ অবস্থায় তারা বাড়িটির ব্রোকারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তাদের কাছে দরজা খোলার বিকল্প চাবি ছিল। এরই মধ্যে যোগাযোগ করা হয় পুলিশে। পুলিশ গিয়ে দরজা খুলে দেখতে পায় রিনা শেখের অর্ধগলিত লাশ।

প্রাথমিক তদন্তে দেখা যায়, বাংলাদেশি ওই তরুণের সঙ্গে প্রেম ছিল রিনার। তার সঙ্গে থাকা অন্য দুই নারী দেশে ফিরে যাওয়ার পর তার সঙ্গে বসবাস শুরু করে তার প্রেমিক। রিনাকে হত্যার জন্য তাকে সন্দেহ করে পুলিশ তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেছে।

একজন পুলিশ কর্মকর্তা বলেছেন, অভিযুক্ত ব্যক্তি ভারত ছেড়ে যায়নি। সে তার নিজের দেশ বাংলাদেশেও নেই। এ অবস্থায় আমাদের সব তথ্যদাতার সঙ্গে যোগাযোগ করি। জানতে পারি সে কোথায় আছে। একটি টিম পাঠানো হয়। তারপর গ্রেপ্তার করা হয় তাকে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। সে বলেছে, রিনার সঙ্গে তার প্রেম ছিল। সে জানতে পেরেছে, প্রেমের নামে রিনা তার সঙ্গে প্রতারণা করছে। তার অন্য একটি সম্পর্ক আছে। তাই রাগে ক্ষোভে সে রিনাকে গলা টিপে হত্যা করেছে। এরপর দরজায় তালা দিয়ে পালিয়ে এসেছে।

ওই বাসাটি তিন সপ্তাহ ধরে যেহেতু বাইরে থেকে তালাবদ্ধ ছিল, তাই কেউ-ই এ বিষয়ে খোঁজ করেনি। গত সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) সেখানে পুলিশ হাজির হয়ে উদ্ধার করেছে রিনার মৃতদেহ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2021 satkhiratimes24.com
Theme Customized By BreakingNews