1. altafbabu1@gmail.com : news :
  2. altafbabu1@gmail.com : Satkhira Times : Satkhira Times
July 31, 2021, 9:03 am
Title :
লকডাউন বাড়তে পারে সাতক্ষীরা নিম্নঞ্চাল প্লাবিত; মাছসহ ক্ষতি শত কোটি টাকার কলারোয়া থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অমিত ঘোষ আটক তৃতীয় বর্ষ পেরিয়ে চতুর্থ বর্ষে পদার্পণ করল দৈনিক সুপ্রভাত সাতক্ষীরা সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের মাস্ক বিতরণ অব্যহত সালেহা ইসলাম শান্তি’র রোগ মুক্তি কামনায় প্রার্থনা জ্বালানি সহযোগিতা জোরদারে কাজ করছে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র আশ্রয়ণের ঘর নির্মাণে অনিয়ম বরদাশত করা হবে না-তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী কলারোয়ায় সেবা’ সংগঠনকে পিপিই, মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস প্রদান সাতক্ষীরায় আজিজা মান্নান ফাউন্ডেশনের সৌজন্যে হতদরিদ্র ও কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

সাতক্ষীরার ভোমরায় ফেনসিডিলের ব্যবসা রমরমা : বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার থেকে ২৫’শো টাকা

  • আপডেট সময় Friday, June 4, 2021

স্টাফ রিপোর্টার : করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে ভারত, বাংলাদেশের সীমান্তে বিজিবি ও বিএসএফ এর কড়া নজরদারি থাকা সত্ত্বেও সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর এলাকায় ফেনসিডিলের রমরমা ব্যবসা ও চোরাকারবার চলছে প্রকাশ্যে। প্রতি বোতল ফেনসিডিল বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার থেকে ২৫শো টাকা।

খোঁজ নিয়ে জানাযায় মাদকের স্বর্গরাজ্য ভোমরা স্থলবন্দর সংলগ্ন ঘোষপাড়া, কানপাড়া, লক্ষ্মীদাড়ি সহ আসপাশের এলাকায় রয়েছে একাধিক ছোট বড়ো মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক চোরাচালান চক্র।

একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, ভোমরা কানপাড়ার ফকির গাজীর ছেলে শহিদুল, শহিদুল এর ছেলে আবুল হাসান খোকা, শহিদুল এর বোন শহিদা, শাইদা, শহিদুলের ঘর জামাই পুলিশ ও বিজিবির সোর্স পরিচয় দানকারী ইসলাম।

এছাড়াও ভোমরা ঘোষপাড়া এলাকার মৃত ছব্বত আলীর ছেলে মাসুম বিল্লাহ, লিলা ঠাকুর, মনি ঠাকুর, পুতুল, বিজিবির সোর্স ফারুক, লক্ষীদাঁড়ির রসিদ, আক্তারুল, আমিনুর, রবিউল এরা সবাই চিহ্নিত মাদক চোরাকারবারি। বহুদিন যাবত প্রকাশ্যে ভোমরা স্থলবন্দর ও বন্দরের আসপাশের এলাকায় মাদকের চোরাকারবার চালিয়ে আসছেন তারা। তাদের প্রত্যেকের নামে একাধিক মাদকের মামলা ও রয়েছে।

এদের মধ্যে মাসুম বিল্লাহ ও শহিদুল ইসলাম নিজেরাই সীমান্ত পেরিয়ে ভারত থেকে ফেনসিডিল ও ইয়াবার বড়ো বড়ো চালান নিয়ে আসেন তারা। এসব মাদক সাতক্ষীরা সহ দেশের বিভিন্ন জেলা শহরে কৌশলে সরবরাহ করা ছাড়াও পরিবারের সদস্যদের মাধ্যমে বিক্রি করান শহিদুল ও মাসুম বিল্লাহ।

গ্রেফতার এড়াতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর দায়িত্বে থাকা অনেক সদস্যদের সাথে গড়ে তুলেছেন সখ্যতা। এছাড়া শহিদুল ও তার পরিবারের সদস্যদের নামেও রয়েছে একাধিক মাদকের মামলা।

পত্র পত্রিকায় ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে একাধিক বার ভোমরাসহ সাতক্ষীরার মাদক ব্যবসায়ী চোরাকারবারিদের নিয়ে সচিত্র সংবাদ প্রকাশ করা হলেও কোনো রকম হেলদোল দেখা যায়না আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর। এ এলাকায় মাদক চোরাচালান, বিক্রি, সেবন চলে আসছে দিনের পর দিন প্রকাশ্যে বেপরোয়া ভাবে সবার চোখের সামনে।

ভোমরা এলাকার একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেছেন, মাদক ব্যবসায়ীরা প্রভাবশালী। মাদকের চোরাকারবারী করে অগাদ টাকার মালিক বনেগেছে তারা। অনেকে বিজিবি,পুলিশের সোর্স পরিচয় দিয়ে এ এলাকায় মাদকের ব্যবসা চালিয়ে আসছে। তারা কাউকে পরোয়া করেনা। প্রকাশ্যে মাদকের এই অপব্যবহার রুখতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা ও করেছেন তারা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2021 satkhiratimes24.com
Theme Customized By BreakingNews