সু-প্রিয় সাতক্ষীরা সদর উপজেলাবাসী,
প্রথমে আন্তরিক সালাম ও শুভেচ্ছা গ্রহণ করবেন ‘আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু’। মহান আল্লাহ্ তা’য়ালা এর অশেষ রহমতে আপনারা সবাই ভালো রয়েছেন বলে আশাকরি। আপনারা সবাই অবগত রয়েছেন, কোভিড-১৯ যা করোনা ভাইরাস নামে পরিচিত – সাম্প্রতিক সময়ে গণমাধ্যমের শিরোনামে প্রাধান্য বিস্তার করেছে।

এশিয়ার বিভিন্ন অংশ এবং এর বাইরেও দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাসটি। এর ভাইরাসটি বিশ্বের অনেক দেশে মহামারি আকার ধারণ করেছে। আজ ‘করোনা ভাইরাস’কে কেন্দ্রকরে আপনারা সবাই এক কঠিন ও সংকটময় পরিস্থিতি মধ্যে দিয়ে সময় পার করছেন।

ইতিমধ্যে বাংলাদেশে ১জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন এবং এখনও ১৪জন ব্যক্তি এ ভাইরাসে আক্রান্ত রয়েছেন। আমাদের সাতক্ষীরা জেলায় সর্বমোট ৩৭জন কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন এবং পরবর্তীতে এর সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। তবে সাধারণ সতর্কতা অবলম্বন করে আপনি এই ভাইরাসটির সংক্রমণ ও বিস্তারের ঝুঁকি কমিয়ে আনতে পারেন।

আমার নির্বাচিত সাতক্ষীরা সদর উপজেলাসহ দেশের সর্বস্তরের জনগণের উদ্দেশ্যে অনুরোধ রইলো আপনারা নিজ নিজ অবস্থান থেকে সর্বদা সচেতন থাকবেন। কোন বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের না হওয়ার জন্যে অনুরোধ করছি।

সর্বদা মাস্ক পরিহিত অবস্থায় চলাচল করবেন। উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে আপনাদের সকলের সুরক্ষার দায়িত্ব আমারি। আপনারা আমাকে আপনাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন। একারনে আমি আপনাদের কাছে চির ঋণী।

আর আমি আমার উপর দায়িত্বভার থেকে যেকোন পরিস্থিতিতে আপনাদের সু-রক্ষা দিতে বদ্ধপরিকর। তাছাড়া বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। তারই অংশ হিসেবে আপনাদের কাছে করোনা ভাইরাস নিয়ে আজকের এই বার্তা।

প্রিয় এলাকাবাসী,
শ্বাসতন্ত্রের অন্যান্য অসুস্থতার মতো করোনা ভাইরাসের ক্ষেত্রেও সর্দি, কাশি, গলা ব্যথা এবং জ্বরসহ হালকা লক্ষণ দেখা দিতে পারে । কিছু মানুষের জন্য করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ মারাত্মক হতে পারে। এর ফলে নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট এবং অর্গান বিপর্যয়ের মতো ঘটনাও ঘটতে পারে। তবে খুব কম ক্ষেত্রেই এই রোগ মারাত্মক হয়।

এই ভাইরাস সংক্রমণের ফলে বয়স্ক ও আগে থেকে অসুস্থ ব্যক্তিদের মারাত্মকভাবে অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি বেশি। তবে যে কোন বয়সের মানুষই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে। তবে একটি বিষয় লক্ষ্যণীয় যে, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শিশুদের ক্ষেত্রে এখনও পর্যন্ত কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

প্রধানত: আগে থেকে অসুস্থ বয়স্ক ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে এই ভাইরাস মারাত্মক হতে পারে। তবে শহরাঞ্চলের দরিদ্র শিশুদের ক্ষেত্রে এই ভাইরাসের পরোক্ষ প্রভাব রয়েছে। করোনা ভাইরাসসহ অন্যান্য রোগের বিস্তার সীমিত পর্যায়ে রাখতে মেডিক্যাল মাস্ক সাহায্য করে। তবে এটার ব্যবহারই এককভাবে সংক্রমণ হ্রাস করতে যথেষ্ঠ নয়।

নিয়মিত হাত ধোয়া এবং সম্ভাব্য সংক্রমিত ব্যক্তির সাথে মেলামেশা না করা এই ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি কমানোর সর্বোত্তম উপায়। তবে সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে করোনা ভাইরাসটি ভয়াবহ গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে।

এটি প্রতিরোধ করার জন্য প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা অত্যন্ত জরুরি। শিশুদের উপর এই ভাইরাসের প্রভাব বা এতে কতজন আক্রান্ত হতে পারে- সে সম্পর্কে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার মারফত আপনারা জেনে গেছেন।

এই ভাইরাসের কোন প্রতিষেধক তৈরী হয়নি এখনও পর্যন্ত। একারনে নিবিড় পর্যবেক্ষণ ও প্রতিরোধ এক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে শুধু নয় বরং এদেশের একজন সচেতন নাগরিক ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন কর্মী হিসেবে আপনাদের পাশে যেকোন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে আপনাদের থাকার থাকার অঙ্গিকার করছি।

‘দশে মিলে করি কাজ হারি জিতি নাহি লাজ’ প্রতিপাদ্য’কে সামনে রেখে বলতে চাই সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা, সচেনতনা অথবা ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করলে সাফল্য আসবে ইনশাআল্লাহ্।

একারনে, সদর উপজেলার অর্ন্তগত ১৪টি ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিসহ সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি অনুরোধ করবো আপনারা দেশের এই সংকটময় পরিস্থিতিতে সবাই জনগণের মাঝে জনসচেতনা তৈরী করবেন।

যেকোন পরিস্থিতিতে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের সাথে থেকে তৃণমূলের জনগণের পাশে থাকবেন। এছাড়াও আপনাদের যেকোন প্রয়োজনে যোগাযোগ করবেন (মোবাইল নং:- ০১৭১১-৩৫৫৮৮৯) অথবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে আমার (উপজেলা চেয়ারম্যান) এর অফিসিয়ালি ফেসবুক পেজে যোগাযোগ করার জন্যে সবিনয়ের সাথে অনুরোধ করছি।

প্রিয় এলাকাবাসী,

বিগত ১৫/২০ দিনের মধ্যে বিদেশ থেকে কেউ যদি দেশে এসে থাকেন, তবে অত্র ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি অথবা গ্রাম পুলিশের কাছে তাদের তথ্যে দেওয়ার অনুরোধ রইলো। এছাড়াও বিদেশ ফেরত কেউ বাড়িতে এসে যদি ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন না মানে তাহলে নিকটস্থ ইউপি পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, থানা, জেলা প্রশাসন ও সিভিল সার্জন কে অবগত করার জন্যে অনুরোধ করছি।

প্রিয় এলাকাবাসী,
জনস্বা‌র্থ বি‌বেচনা ক‌রে এলাকায় যে কোন অনুষ্ঠা‌ন, হাট-বাজার, সামাজিক কর্মসূচিগুলোতে বহু লোক সমাগম না করার জন্য বি‌শেষ ভা‌বে অনু‌রোধ করা গেল। তবে কেউ যদি এই সংকটময় পরিস্থিতির সুযোগ নিয়ে দ্রব্যমূল্যসহ যেকোন পণ্যের দাম বাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে অথবা গুজব সৃষ্টি করে তাহলে তার সমন্ধে নিকটস্থ থানা, উপজেলা পরিষদ, জেলা প্রশাসনকে অবগত করার জন্যে অনুরোধ করছি।

আপনাদের যেকোন পরিস্থিতিতে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের পাশাপাশি উপজেলা পরিষদ/প্রশাসন আপনাদের সর্বাত্মক ভাবে সহযোগীতা করে যাবে।

ধন্যবাদান্তে
আলহাজ্ব মো: আসাদুজ্জামান বাবু

চেয়ারম্যান, সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদ