অনলাইন ডেস্ক : মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা বেড়ে মঙ্গলবার ৮০ হাজার ১৪২ জনে দাঁড়িয়েছে। খবর এএফপি’র।

ডিসেম্বরে চীনে মহামারি করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে বিশ্বের ১৯২ টি দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১৩ লাখ ৯৭ হাজার ১৮০ জনে দাঁড়িয়েছে।

এদের মধ্যে কমপক্ষে ২ লাখ ৫৭ হাজার ১০০ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের এবং বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার দেয়া তথ্য থেকে এএফপি’র সংগ্রহ করা উপাত্ত ব্যবহার করে তৈরি করা এ পরিসংখ্যানে করোনাভাইরাসের প্রকৃত আক্রান্তের সংখ্যার কেবলমাত্র একটি আংশিক প্রতিফলন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

কেননা, বিশ্বের অনেক দেশ মারাত্মকভাবে আক্রান্ত এমন লোকদেরই করোনা পরীক্ষা করছে। সোমবার গ্রীনিচ মান সময় ১৯০০ টা থেকে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে নতুন করে ৬ হাজার ৯৫৯ জনের মৃত্যু এবং ৮৬ হাজার ৩৭৪ জন আক্রান্ত হয়েছে।

গত ২৪ ঘন্টায় যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু ঘটেছে। এ সময়ের মধ্যে দেশটিতে ১ হাজার ৬৩২ জনের প্রাণহানি ঘটে। এরপর ফ্রান্সে ১ হাজার ৪১৭ এবং ব্রিটেনে ৭৮৬ জন করোনাভাইরাসে মারা যায়।

করোনাভাইরাসে ইতালিতে সবচেয়ে বেশি লোক প্রাণ হারিয়েছে। দেশটিতে এ মহামারি ভাইরাসে মোট ১৭ হাজার ১২৭ জনের মৃত্যু এবং ১ লাখ ৩৫ হাজার ৫৮৬ জন আক্রান্ত হয়েছে।

দেশটিতে ২৪ হাজার ৩৯২ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে। গত ফেব্রুয়ারী মাসের শেষের দিকে ইতালিতে প্রথম করোনাভাইরাসে মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

স্পেনে করোনাভাইরাসে ১৩ হাজার ৭৯৮ জনের মৃত্যু এবং ১ লাখ ৪০ হাজার ৫১০ জন আক্রান্ত হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১২ হাজার ২১ জনে এবং আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৮৩ হাজার ২৫৬ জনে দাঁড়িয়েছে।
সারা বিশ্বে আক্রান্তের এ সংখ্যা সর্বোচ্চ।

ফ্রান্সে করোনাভাইরাসে ১০ হাজার ৩২৮ জনের মৃত্যু এবং ১ লাখ ৯ হাজার ৬৯ জন আক্রান্ত হয়েছে। এরপর ব্রিটেনে করোনাভাইরাসে ৬ হাজার ১৫৯ জনের মৃত্যু এবং ৫৫ হাজার ২৪২ জন আক্রান্ত হয়েছে।

চীনে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩ হাজার ৩৩১ এবং আক্রান্তের সংখ্যা ৮১ হাজার ৭৪০ জনে দাঁড়িয়েছে। দেশটিতে ৭৭ হাজার ১৬৭ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। চীনে গত জানুয়ারির পর থেকে মঙ্গলবার এই প্রথম কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি বলে জানানো হয়।

সোমবার বেনিন, মাদাগাস্কার ও মালাবিতে এই প্রথম একজন করে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত মৃত্যুর কথা জানানো হয়েছে। সাওতোম ও প্রিন্সিপি এই প্রথম একজন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের খবর নিশ্চিত করেছে।

এ পর্যন্ত ইউরোপের দেশগুলোতে করোনাভাইরাসে মোট ৭ লাখ ৩৫ হাজার ৭৮১ জন আক্রান্ত এবং ৫৭ হাজার ৩৫১ জন মারা গেছে। যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় একত্রে ৪ লাখ ১ হাজার ৬৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এবং ১২ হাজার ৪১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এশিয়ায় করোনাভাইরাসে ১ লাখ ২৩ হাজার ৭৪২ জন আক্রান্ত ও ৪ হাজার ৩৩২ জন মারা গেছে।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে মোট ৮৩ হাজার ৩৩ জন আক্রান্ত এবং ৪ হাজার ৯১ জনের মৃত্যু হয়েছে। ল্যাটিন আমেরিকা ও ক্যারিবীয় দেশগুলোতে করোনাভাইরাসে ৩৬ হাজার ৩১৭ জন আক্রান্ত এবং ১ হাজার ৩৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

আফ্রিকায় করোনাভাইরাসে মোট ১০ হাজার ২৪৭ জন আক্রান্ত হয়েছে এবং ৫২২ জন মারা গেছে। ওশেনিয়ায় করোনাভাইরাসে ৬ হাজার ৯৯৭ জন আক্রান্ত ও ৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।