মাহমুদুল হাসান শাওন, দেবহাটা: চলমান করোনা পরিস্থিতিতে প্রশাসনিক নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ঢাকা, নারায়নগঞ্জ, ময়মনসিংহসহ বাইরের জেলা থেকে তিনটি ট্রাকে বোঝাই অবস্থায় কালীগঞ্জ ও শ্যামনগর উপজেলায় যাওয়ার সময় ৭৩ জন ইটভাটা শ্রমিককে দেবহাটাতে আটক পরবর্তী স্ব স্ব উপজেলায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

এরা সকলেই সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ ও শ্যামনগর উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা। বৃহষ্পতিবার সকাল ১০টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবহাটা উপজেলার চাঁদপুর ও সখিপুর এলাকা থেকে থানা পুলিশের সহায়তায় ঢাকা, নারায়নগঞ্জ ও ময়মনসিংহ থেকে আসা তিনটি ট্রাকে থাকা ৭৩ জন ইটভাটা শ্রমিককে আটক করেন স্থানীয়রা।

এসময় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়া আফরীন এবং দেবহাটা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বিপ্লব কুমার সাহা।  

পরে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের নির্দেশনায় কালীগঞ্জ ও শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে আলোচনা করে আটককৃত ৭৩ জন ইটভাটা শ্রমিককে তাদের স্ব স্ব উপজেলায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে নেয়ার নির্দেশ দেন দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়া আফরীন।

একই সাথে নির্দেশনা উপেক্ষা করে এসকল শ্রমিককে সাতক্ষীরার অভ্যন্তরে বিভিন্ন উপজেলায় নিয়ে আসার অপরাধে মোবাইল কোর্টে ট্রাকের চালকদের ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন তিনি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়া আফরীন বলেন, আটককৃত ৭৩ জন কালীগঞ্জ ও শ্যামনগর উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা।

তারা দীর্ঘদিন ঢাকা, নারায়নগঞ্জ ও ময়মনসিংহে ইটভাটায় শ্রমিক হিসেবে নিয়োজিত ছিলো।

সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে সেখানকার ইটভাটা গুলো বন্ধ ও এলাকায় করোনা সংক্রমন ছড়িয়ে পড়ায় তারা গোপনে ট্রাকে করে সাতক্ষীরায় প্রবেশ পরবর্তী নিজেদের এলাকায় ফিরছিলো।

দেবহাটাতে তাদেরকে আটকের পর পুলিশ পাহারায় স্ব স্ব উপজেলায় পাঠিয়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়া ট্রাকের চালকদের ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।