আরিফুল ইসলাম আশা : সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের আজ বৃহস্পতিবার ১৬ এপ্রিল জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল তার অফিস কক্ষে সাতক্ষীরা জেলার চিংড়ি চাষী এবং প্রবীণ ব্যক্তিদের সাথে আলোচনা সভা করেছেন।

করোনা পরিস্থিতিকে কেন্দ্র করে চিংড়ি খাত যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সে বিষয়ে সমন্বিত পদক্ষেপ গ্রহণ করার কথা বলেন জেলা প্রশাসক।

সাতক্ষীরাতে ৮৬ হাজার হেক্টর জমিতে চিংড়ি চাষ হয় এবং ১ লক্ষ ৪২ হাজার টন মাছ উৎপন্ন হয় যার মধ্যে ৩ থেকে ৪ হাজার মেঃ টন বাগদা চিংড়ি এবং ৮০০ থেকে ৯০০ মেঃ গলদা চিংড়ি।

এই শিল্পের সাথে প্রায় ৬৭ হাজার কৃষক এবং প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে প্রায় ২.২০ লক্ষ মানুষ জড়িত।

জেলা প্রশাসক বলেন, এই মুহূর্তে উৎপাদিত চিংড়ি স্থানীয়ভাবে এবং দেশের অভ্যন্তরে কীভাবে বাজারজাত করা যায় এবং বাকি চিংড়ি সংরক্ষণ করা যায় সেবিষয়ে আলোচনা করাহয়।

এছাড়া সকল চিংড়ি চাষীর ডাটাবেস করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় আলোচনা সভায় । গতকালও এ বিষয়ে আরও একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত সভায় মৎস্য ও চিংড়ি খাতের জন্য প্রণোদনা এবং চিংড়ি চাষীরা কিভাবে স্বল্প সুদে ঋণ সুবিধা পেতে পারে এবং ১০ বছর মেয়াদে কিস্তিতে ঋণ পরিশোধ করতে পারে সে বিষয়ে আলোচনা হয়।

আলোচনা অনুসারে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সুপারিশ সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল।