অনলাইন ডেস্ক : স্বাধীনতার পর এ দেশে যত বড় বড় ভৌত অবকাঠামো তৈরি হয়েছে, তার প্রায় প্রতিটির সঙ্গেই তিনি কোনো না কোনোভাবে জড়িত।

যুক্ত ছিলেন বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে। পদ্মা সেতু নির্মাণের বিশাল কর্মযজ্ঞেও তিনি যুক্ত হন। একসময় যুক্তরাষ্ট্রে কাজের ডাক পেয়েছিলেন বিখ্যাত আরেক বাংলাদেশি প্রকৌশলী এফ আর খানের কাছ থেকে।

মারা গেছেন একুশে পদকপ্রাপ্ত জাতীয় অধ্যাপক প্রফেসর জামিলুর রেজা চৌধুরী । তিনি ছিলেন একজন খ্যাতনামা প্রকৌশলী, গবেষক, শিক্ষাবিদ, বিজ্ঞানী, তথ্য-প্রযুক্তিবিদ ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা।

মঙ্গলবার ভোরে কলাবাগানের বাসায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর।

তার পরিবারের সদস্যরা জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে ঘুমের মধ্যে অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরীর ‘ম্যাসিভ হার্ট অ্যাটাক’ হয়। ভোর ৪টার দিকে স্কয়ার হাসপাতালে নেয়া হলে ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তার জানাজা মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) বাদ জোহর ধানমণ্ডি ঈদগাহ মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। পরে বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে। তার ছেলে আমরিকা এবং মেয়ে ইংল্যান্ডে থাকায় তারা উপস্থিত হতে পারছেন না বলে জানা গেছে।

১৯৪৩ সালের ১৫ নভেম্বর সিলেটে জন্মগ্রহণ করেন অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী। তিনি পড়াশোনা করেছেন সেন্ট গ্রেগরিজ স্কুল ও ঢাকা কলেজে। এরপর ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার জন্য তিনি ভর্তি হন আহসানউল্লাহ ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে (বর্তমানে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়)। ১৯৬৩ সালে তিনি প্রথম বিভাগে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করেন।

১৯৬৩ সালের নভেম্বর মাসে তিনি প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন বুয়েটের পুরকৌশল বিভাগে। পরে তিনি উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেন সাউদাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে।

২০০১ সাল পর্যন্ত তিনি বুয়েটে অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

দায়িত্ব পেয়েছিলেন ১৯৯৬-এ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা হিসেবেও। উপাচার্য ছিলেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে।

বাংলাদেশ আর্থকোয়েক সোসাইটি, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) এবং বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছিলেন অনেক দিন ধরেই।

সর্বশেষ তিনি ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

তার বাবা আর ভাইসহ পরিবারের অনেক সদস্যই প্রকৌশলী ছিলেন। বড় হয়ে তার বাবা ও ভাইদের মতো তিনিও বেছে নেন এই পেশা।

স্বাধীনতার পর এ দেশে যত বড় বড় ভৌত অবকাঠামো তৈরি হয়েছে, তার প্রায় প্রতিটির সঙ্গেই তিনি কোনো না কোনোভাবে জড়িত। যুক্ত ছিলেন বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে।

পদ্মা সেতু নির্মাণের বিশাল কর্মযজ্ঞেও তিনি যুক্ত হন।। একসময় যুক্তরাষ্ট্রে কাজের ডাক পেয়েছিলেন বিখ্যাত আরেক বাংলাদেশি প্রকৌশলী এফ আর খানের কাছ থেকে।

দেশে-বিদেশে বিভিন্ন গবেষণা পত্রিকায় জামিলুর রেজা চৌধুরীর ৬৯টি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। কাজের স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন অসংখ্য পুরস্কার আর সম্মাননা।

এর মধ্যে আছে বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউট স্বর্ণপদক, আছে ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একমাত্র বাংলাদেশি হিসেবে পাওয়া সম্মানসূচক ডক্টর অব ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে বিশেষ অবদানের জন্য ২০১৭ সালে তিনি একুশে পদক লাভ করেন। ২০১৮ সালের ১৯ জুন বাংলাদেশ সরকার তাকে জাতীয় অধ্যাপক হিসেবে নিয়োগ দেয়।