অনলাইন ডেস্ক : করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় শুরু থেকেই তৎপর বাংলাদেশের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। এরই মধ্যে বেশ কিছু উদ্যোগ নিয়ে প্রশংসিত হয়েছেন তিনি।

নানাভাবে সাহায্য করার পাশাপাশি নিজেদের ব্যক্তিগত স্মারক নিলামে তুলে সেই টাকা সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য ব্যয় করছেন অনেকেই। নিজের প্রিয় ব্যাট নিলামে তুলে সেই দলে যোগ দিয়েছিলেন টাইগার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। কয়েকদিনের নিলাম শেষে বেশ চড়া দামে ব্যাটটি বিক্রি হয়েছে।

নিলাম থেকে মুশফিকের ব্যাটটি ১৭ লাখ টাকায় কিনে নিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদির প্রতিষ্ঠিত ‘শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশন।’ নিশ্চিত করেছেন নিলামকারী প্রতিষ্ঠান পিকাবু ডটকমের প্রধান নির্বাহী মরিন তালুকদার।

গত ৯ মে (শনিবার) রাতে শুরু হয় ব্যাটটির নিলাম। মাঝে ভুয়া বিডের কারণে কিছু সময় নিলাম কার্যক্রম বন্ধ ছিল। শেষ পর্যন্ত আবার নিলাম কার্যক্রম শুরু হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে শেষ হয়।

নিলাম থেকে প্রাপ্ত পুরো অর্থই অসহায় মানুষদের জন্য ব্যয় করার ঘোষণা দিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। ভুয়া বিডিংয়ের কারণে কিছুটা ঝক্কি-ঝামেলা পোহাতে হলেও ব্যাটটির নিলাম সম্পন্ন হয়েছে।

প্রায় ১৭ লাখ (১৬ লাখ ৮০ হাজার) টাকায় ব্যাটটি বিক্রি হয়েছে নিলামে, যার ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছিল ৬ লাখ টাকা।

২০১৩ সালের শ্রীলংকা সফরে গল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন মুশফিকুর রহিম।

করোনায় মানুষের সাহায্যের জন্য এই ব্যাটটিই নিলামে তোলেন তিনি। শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টায় স্পোর্টস ফর লাইফ পেজে নিলামে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হয়।