আজমল হোসেন জুয়েল : শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবির পক্ষে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল সাতক্ষীরা জেলা শাখার পক্ষে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারক লিপি প্রদান করা হয়েছে।

রবিবার (২১জুন) জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এ স্মারকলিপি প্রদান করেন জেলা ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ। এ সময় জেলা প্রসাশক এর পক্ষে সারকলিপি জমা নেন জেলা প্রশাসকের প্রশাসনিক কর্মকর্তা।

স্মারকলিপিতে ছাত্রদল নেতারা ‍উল্লেখ্য করেন, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল সবসময় শিক্ষার্থীদের যৌক্তির দাবির পক্ষে সোচ্ছার । করোনা ভাইরাসের কারণে প্রায় দুই মাসের অধিক সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ আছে। শুধু বাংলাদেশে নয় প্রথিবীর অন্যন্য দেশেও ।

লকডাউনের ফলে স্থবির হয়ে পড়েছে বাংলাদেশসহ বিশ্ব অর্থনীতি। বর্তমান পরিস্থিতিতে শিক্ষা্র্থীদের বেতনসহ পড়াশোনার খরচ চালানো তাদের অভিভাবকদের জন্য অত্যন্ত কষ্টকর । তাই বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে শিক্ষার্থীদের প্রতি সদয় হয়ে সরকারী ও বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষার্থীদের বেতনাদি মওকুফ করে দিলে তা হবে মানবতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

নেতৃবৃন্দ আরও উল্লেখ করেন, ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের আর্থিক সাহা্য্যের জন্য তহবিল গঠনের জোর দাবি জানান। তবে পরবর্তীতে করোনা মহামারীর গতি কিছুটা স্থিতি হলে ভয়, শঙ্কা ও উদ্বেগ পেছনে ঠেলে স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত ও সেশনজট সামাল দিতে একটি পরিকল্পিত সমন্বিত উদ্যোগের মাধ্যমে শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর দিকে এগিয়ে যাওয়াটা সমীচীন হবে বলে মনে করেন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল ।

অবিলম্বে উল্লেখিত দাবিগুলির প্রতি জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষন ও অবিলম্বে তা বাস্তবায়নের জন আহ্বান জানান জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল সাতক্ষীরা জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ।

সাধারণ শিক্ষার্থীদের নানা সমস্যার কথা উল্লেখ করা হয় এবং বেসরকারি শিক্ষকদের বেতন ভাতা সরকারি ফান্ড থেকে দেওয়ার অনুরোধ করা হয়।

সভাপতি শেখ শরিফুজ্জামান সজীব জানান, দেশ বর্তমান কঠিন সময় পার করছে। স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকার কারণে শিক্ষার্থী সহ বেসরকারি শিক্ষকরা চরম বিপদে।

এজন্য শিক্ষার্থী বেতন মাফ করা এবং বেসরকারি শিক্ষকদের সরকারি ফান্ড থেকে বেতন দেওয়ার জন্য সরকারের কাছে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে।

জেলা ছাত্রদলের স্মারক লিপি প্রদান কালে উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মমতাজুল ইসলাম চন্দনসহ নেতৃবৃন্দ।