খুলনা, ১৭ আষাঢ় (০১ জুলাই): খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, শ্রমিকদের স্বার্থরক্ষায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অত্যন্ত আন্তরিক। সরকার ভর্তুকি দিয়ে কোন মিল চালাবে না এবং কোন মিল বন্ধও করবে না। সরকার এবং প্রাইভেট পাবলিক পার্টনারশিপ (পিপিপি) এর মাধ্যমে মিলগুলো চালু থাকবে। এতে করে মিলগুলো আরো আধুনিকায়ন হবে।

মেয়র আজ (বুধবার) সকালে খুলনা নগরীর ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘মানবিক সহায়তা কর্মসূচির’ আওতায় ঘরে থাকা পাঁচশত ৭১ কর্মহীন নিম্নআয়ের শ্রমজীবী, অসহায়, দুস্থ ও হতদরিদ্রদের মাঝে সাত কেজি করে চাল ও নগদ অর্থসহ খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, সক্ষম শ্রমিকদের দিয়ে মিলগুলো চালানো হবে। অবসরে যাওয়া শ্রমিকদের সকল পাওনা আগামী দুই মাসের মধ্যে শতভাগ এককালীন পরিশোধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। শ্রমিকদের পাওনা ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করা হবে।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা, ৩১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আরিফ হোসেন মিঠু, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ জিয়াউল ইসলাম মন্টু, সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম তালুকদারসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পরে সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘মানবিক সহায়তা কর্মসূচির’ আওতায় নগরীর ৩০, ২৭, ২৫, ২০, ২১, ১৬, ও ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের চারশত ২৮ জন করে মোট দুই হাজার নয়শত ৯৬ ঘরে থাকা কর্মহীন নিম্নআয়ের শ্রমজীবীদের মাঝে সাত কেজি করে চাল ও সবজি ক্রয়ের জন্য নগদ একশত করে টাকাসহ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন।