অনলাইন ডেস্ক : সুন্দরবনে জেলেদের অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় ও জলদস্যু কানেকশনে পুলিশের হাতে তুহিন নামের এক ব্যক্তি গ্রেপ্তার হয়েছে। ধৃত তুহিনের বাড়ি সাতক্ষীরা শহরের মুনজিতপুর মিনি মার্কেট এলাকায় । সে সাতক্ষীরা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সৈয়দ মাহমুদ পাপার ভাগ্নে ।

সাতক্ষীরা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মির্জা সালাউদ্দিন জানিয়েছেন, সুন্দরবনে দস্যুবৃত্তি কানেকশন ও মুক্তিপণের টাকা লেনদেনের ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে তুহিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে । তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে ।

রাতেই তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হলে বিস্তারি তথ্য জানতে পারবেন । তবে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তুহিন শহরের পোষ্ট অফিস মোড়ে টাইলস এর ব্যবসায় নিয়জিত রয়েছে।

এছাড়াও সে ঠিকাদারি ব্যবসা করে । সম্প্রতি র‌্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে সুন্দরবনের তিন জল দস্যু নিহত হওয়ার পর নড়ে চড়ে বসে পুলিশ । খুলনা, সাতক্ষীরা ও বাগেরহাট জেলার পুলিশ সুন্দরবনে অভিযান শুরু করে ।

গত ৪জুলাই সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান (পিপিএম) বিশাল পুলিশ বাহীনি নিয়ে দস্যু দমনে সুন্দরবনে মহড়া দিয়ে এসেছেন।