অনলাইন ডেস্ক : বৈশ্বিক করোনাভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যে সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে আজ পালিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল আযহা। তবে অন্যান্য বছরের মতো এবার খোলা মাঠে কোন ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে না।

সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করবেন মুসল্লিরা। নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি জানিয়েছেন স্থানীয় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।

হজব্রত পালনকারী হাজিরা পবিত্র মুজদালিফা ময়দানে খোলা আকাশের নিচে সারারাত এবাদত বন্দেগীর পর সকালে ফজরের নামাজ আদায় করে মিনায় পৌঁছেন। প্রথম দিন বড় শয়তানকে কংকর নিক্ষেপ করে পশু কোরবানি দিয়ে মাথা মুন্ডন করে শেষ করছেন হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা। পর্যায়ক্রমে আরো তিন দিন মিনায় অবস্থান করে তিনটি শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ করবেন আগত হাজিরা।

মহামারি করোনাভাইরাস এর মধ্যে সীমিত পরিসরে হজে অংশগ্রহণ করা হাজীদের মধ্যে কোন ধরনের ভাইরাসের সংক্রমণ অথবা কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন এ ধরনের কোন খবর পাওয়া যায়নি। কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে হাজিরা সুষ্ঠুভাবে হজ পালন করছেন বলে জানা গেছে।

তবে অবৈধ বা অনুমতিপত্র ছাড়া হজে অংশগ্রহণ করার কারণে কয়েকশো স্থানীয় এবং প্রবাসীকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আটককৃত প্রবাসীরা কোন দেশের নাগরিক তা জানা যায়নি।

মক্কা বাংলাদেশ হজ মিশনের কাউন্সিলর হজ মোঃ মাসুদুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে কত সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী এবারের হজে অংশগ্রহণ করেছেন অথবা অবৈধভাবে হজ পালন করার কারণে কত জনকে আটক করা হয়েছে হজ মিশন এর কাছে এই ধরনের কোন তথ্য নেই বলে তিনি নিশ্চিত করেছেন।