দীপক শেঠ, কলারোয়া প্রতিনিধি : কলারোয়ায় যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে আনন্দঘন পরিবেশে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত হয়েছে। ত্যাগ, শান্তি, সৌহার্দ্য আর আনন্দের বার্তা নিয়ে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও পৌরসভাসহ উপজেলা বিভিন্ন মসজিদে মুসুল্লীরা পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করে ঈদ মোবারক জানিয়ে একে অপরের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

প্রতিবছর পবিত্র জিলহজ মাসের ১০ তারিখ মুসলমানদের এই আনন্দের দিনটি উদযাপিত হয়। ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী পবিত্র এই মাসের শনিবার(১আগষ্ট) পারিবারিক ও ব্যক্তিগতভাবে পশু কোরবানি দিয়েছেন সারাদেশের ন্যায় কলারোয়ার ধর্মপ্রান মুসলমানরা।

শনিবার (১আগষ্ট) সকালে দুই রাকাত ওয়াজিব নামাজ আদায়ের পর মহান আল্লাহর নৈকট্য ও সন্তুষ্টি লাভের জন্য পশু কোরবানির মধ্য দিয়ে মুসলমানরা উদযাপন করেছেন পবিত্র দিনটি। এদিকে মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ বিস্তার রোধে ঈদুল ফিতরের মতো কোরবানি ঈদেও কলারোয়ায় ঈদগাহে ঈদের জামাত না হয়ে মসজিদে মসজিদে সামাজিক (শারীরিক) দূরত্ব বজায় রেখে জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জানা যায়।

করোনার কারণে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে, প্রয়োজনে একই মসজিদে একাধিকবার ঈদের জামাতে নামাজ আদায় করা হয়। কলারোয়ার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ, উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদ,থানা জামে মসজিদ, সরকারি কলেজ বাসস্টান্ড জামে মসজিদ, তুলশিডাঙ্গা জামে মসজিদ, হুলহুলিয়া ঈদগাহ সংলগ্ন মসজিদসহ পৌরসভা ও উপজেলার বিভিন্ন মসজিদে শনিবার সকাল ৭টা থেকে একাধিক সময়ে অনুষ্ঠিত ঈদ জামাতে মুসুল্লীরা নামাজ আদায় করেন।

উল্লেখ্য, কলারোয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব বি.এম নজরুল ইসলাম, সাবেক সংসদ সদস্য বিএনপি নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন, সহকারি কমিশনার(ভূমি) আক্তার হোসেন, থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মুনীর উল গীয়াস, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বুরহান উদ্দীন, পৌর মেয়র(ভারপ্রাপ্ত) মাস্টার মনিরুজ্জামান বুলবুল, আ’লীগের সাবেক

আহবায়ক সাজেদুর রহমান খাঁন চৌধুরী মজনু, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আসাদুজ্জামান শাহাজাদা, জেলা পরিষদের সদস্য শেখ আমজাদ হোসেন, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আরাফাত হোসেন, উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আলিমুর রহমান,সাংগঠনিক সম্পাদক বেনজির হোসেন হেলাল, প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামান বিপ্লব, প্রধান শিক্ষক আমানুল্যাহ আমান, প্রধান শিক্ষক আজহারুল ইসলাম, ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ সহ সকল মুসুল্লীরা স্ব-স্ব এলাকার মসজিদে নামাজ আদায় করেছেন বলে জানা যায়।