ঢাকা, ২১ শ্রাবণ (৫ আগস্ট) : বাংলাদেশ সরকার এবং জাপান সরকারের মধ্যে COVID-19 Crisis Response Emergency Support Loan এর জন্য বিনিময় নোট ও ঋণচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

শেরেবাংলা নগরে অবস্থিত অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আজ এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন, বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ITO Naoki-এর সাথে বিনিময় নোট এবং বাংলাদেশস্থ জাইকা অফিসের চিফ রিপ্রেজেন্টেটিভ Yuho Hayakawa-এর সাথে ঋণচুক্তি স্বাক্ষর করেন।

COVID-19 Crisis Response Emergency Support Loan এর আওতায় জাপান সরকার ৩৫ হাজার মিলিয়ন জাপানিজ ইয়েন (আনুমানিক ৩২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) ঋণ সহায়তা প্রদান করবে। এর উদ্দেশ্য হলো COVID-19 Pandemic এর কারনে বাংলাদেশের সম্ভাব্য অর্থনৈতিক মন্দা উত্তরণে বাংলাদেশ সরকার ঘোষিত আর্থিক প্রণোদনা কার্যক্রম বাস্তবায়নে বাজেট সাপোর্ট প্রদান করা।

এ ঋণের বাৎসরিক সুদের হার ০.০১ শতাংশ যা ৪ বছরের গ্রেস পিরিয়ডসহ ১৫ বছরে পরিশোধযোগ্য। এ ঋণের মাধ্যমে জাপান সরকার প্রথমবারের মত বাংলাদেশ সরকারকে বাজেট সহায়তা প্রদান করছে।

স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত জাপান সরকার বাংলাদেশের আর্থসামাজিক অবস্থার উন্নয়নে বিভিন্ন সেক্টরে উল্লেখযোগ্য সহায়তা প্রদান করেছে। দ্বি-পাক্ষিক পর্যায়ে জাপান বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্নয়ন সহযোগী দেশ।

অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জনে বাংলাদেশ সরকারের অগ্রাধিকারের সাথে সামাঞ্জস্য বজায় রেখে জাপান সরকার অবকাঠামো উন্নয়ন, যোগাযোগ, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, কৃষি, শিক্ষা,স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ, পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন, পল্লী উন্নয়ন, পরিবেশ উন্নয়ন এবং মানবসম্পদ উন্নয়ন খাতের প্রকল্পে ঋণ ও বিভিন্ন প্রকার অনুদান সহায়তা হিসেবে জুন ২০২০ পর্যন্ত ১৪ দশমিক ২৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদান করেছে।

তথ্যবিবরণী -নম্বর : ২৮৯১