দেবহাটা প্রতিনিধি : দেবহাটায় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পারুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক লোকমান কবির এবং পারুলিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কুতুব আল কাদেরীর বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব আল ফেরদাউস আলফা’র দায়েরকৃত মিথ্যা মানহানি মামলার প্রতিবাদে এবং প্রত্যাহারের দাবীতে দলীয় সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার বিকালে দলীয় বর্ধিত সভা শেষে ২নং পারুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে আওয়ামীলীগসহ সকল সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনটির আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পারুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক লোকমান কবির।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, কোমরপুর এলাকায় আওয়ামীলীগের রাজনীতি ধ্বংস করার লক্ষ্যে নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করে হয়রানি করছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রাণালয়ের তালিকাভূক্ত হুন্ডি ব্যবসায়ী, চোরাচালানী, অস্ত্র ও মাদক ব্যবসায়ী আল ফেরদৌস আলফা।

এমনকি দলীয় নেতাকর্মীদের সম্মানহানী করতে বিভিন্ন অপ-প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। গত ১৫ জুলাই ভোরে দেবহাটার শাখরা কোমরপুর সীমান্ত থেকে ভারতে পালানোর সময় বহুল আলোচিত প্রতারক সাহেদ করিমকে অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেফতার করে র‌্যাব।

সাহেদকে গ্রেফতারের পর তাকে ভারতে পালানোর সহায়তা কারীদের আইনের আওতায় আনার বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এতে দেশের সকল প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকায় সংবাদটি প্রকাশ হয়।

তার মধ্যে কিছু কিছু গণমাধ্যমে সাহেদের আশ্রয়দাতা ও তাকে ভারতে পালানোর সাথে জড়িত উল্লেখ করে সাতক্ষীরার চিহ্নিত চোরাকারবারী স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের তালিকাভূক্ত অস্ত্র ও হুন্ডি ব্যবসায়ী, জেলা পরিষদের সদস্য আল ফেরদাউস আলফার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

তাৎক্ষনিক ভাবে সেই খবর ভাইরাল আকারে ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত একটি খবর ফেসবুকে আমি ও পারুলিয়া ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কুতুব আল কাদরী শেয়ার করি।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দেয়াসহ আমার ও কুতুব আল কাদেরীর বিরুদ্ধে ১৬ ই জুলাই সিআর-৪২৬ মানহানী মামলাটি দায়ের করেন আলফা। আদালত তার মামলার আবেদনটি প্রাথমিক তদন্তের জন্য পিবিআইকে দায়িত্ব দিয়েছেন।

যেহেতু সাহেদকে ভারতে পাঠাতে চোরাকারবারী আলফা ৫০ লক্ষ টাকা চুক্তিবদ্ধ হয় এমন খবর র‌্যাবের উদৃতি দিয়ে দেশের বিভিন্ন চ্যানালে প্রচারিত ও প্রকাশিত হয়। তাই সেই খবর আমরা ফেসবুকে শেয়ার করেছি। আর এতে শত্রুতার বশবর্তী হয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রাণালয়ের তালিকাভূক্ত হুন্ডি, চোরাচালান ও অস্ত্র ব্যবসায়ী আলফা আমিসহ অপর আওয়ামী লীগ নেতা কুতুব উদ্দীনের বিরুদ্ধে মিথ্য হয়রানিমূলক মামলাটি দায়ের করেছেন।

দলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্য মামলা দায়ের করে আইনের চোখে অপরাধি সাব্যস্ত করার পাশাপশি সম্মানহানী করার চেষ্টা চালিয়েছেন আলফা। সত্য সংবাদ শেয়ার করায় আমাদের নামে আলফার মিথ্যা মামলা দায়েরের ঘটনায় দলীয়ভাবে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একইসাথে মামলটির তদন্তভার প্রাপ্ত পিবিআই কর্মকর্তাদের বিষয়টি সঠিক তদন্তের অনুরোধ জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে দেবহাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, আওয়ামী লীগ নেতা আরশাদ আলী, পারুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মিন্নুর, ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সুমন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মাহবুব আলম খোকন, কৃষক লীগের সদস্য সচিব আব্দুল্যাহ হীমসহ মুলদল ও সকল সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।