কালিগঞ্জ প্রতিনিধি : কালিগঞ্জ উপজেলার পল্লীতে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘঠিত হয়েছে। ঘটনাটি সোমবার (২৪ আগষ্ট) গভীর রাতে বিষ্ণুপুর গ্রামে এক স্কুল শিক্ষক ও তার ভাইয়ের বাড়িতে ঘটেছে। জানাগেছে, পৃথক দু’টি বাড়ি থেকে সাড়ে ১৭ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ সাড়ে ৭৯ হাজার টাকা নিয়ে গেছে চোরচক্রটি।

এব্যাপারে বিষ্ণুপুর গ্রামের মৃত রাঘবচন্দ্র গাইনের ছেলে স্কুল শিক্ষক নির্মল কুমার গাইন (৪৫) অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কালিগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগসূত্রে জানাগেছে, সোমবার রাত আনুমানিক ১ টার পর চোরচক্রটি অভিনব কায়দায় নির্মল কুমার গাইনের পাকা বসতঘরের জানালার গ্রিল খুলে ভিতরে প্রবেশ করে। এসময় তারা স্টীলের আলমারি ও কয়েকটি গোপন লকারের তালা খুলে ভিতরে রক্ষিত আনুমানিক ১০ ভরি ১০ আনা ওজনের বিভিন্ন স্বণালঙ্কার ও নগদ ৭৪ হাজার টাকা নিয়ে যায়।

একই রাতে চোরচক্রটি পাশের বাড়িতে তার ভাই মৃত গোবিন্দ কুমার গাইনের পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে না থাকার সুযোগে ওই বাড়ির বারান্দার গেইটের আংটা ও দরজার তালা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করে ৬ ভরি ১৩ আনা ওজনের বিভিন্ন স্বর্ণালঙ্কার, নগদ সাড়ে ৫ হাজার টাকা ও একটি বাইসাইকেল চুরি করে নিয়ে যায়।

দুই বাড়িতে কাপড়চোপড় ও অন্যান্য জিনিসপত্র তছনছ করলেও সেগুলো নিয়ে যায়নি চোরচক্র। চুরির খবর জানতে পেরে সোমবার (২৪ আগস্ট) সকালে থানার উপ-পরিদর্শক জিয়ারত হোসেন এবং

সন্ধ্যায় দেবহাটা সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (কালিগঞ্জ সার্কেলে অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত) মো. ইয়াছিন আলী, কালিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. দেলোয়ার হুসেন ও থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত এসএম আজিজুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ইদানিং কালিগঞ্জ উপজেলায় বিভিন্ন স্থানে ছিচকে চোরের উপদ্রব বৃদ্ধি পেয়েছে।