চট্টগ্রাম, ২৫ আশ্বিন (১০ অক্টোবর): চট্টগ্রামের ৩১২ দুঃস্থ পরিবার পাচ্ছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় নির্মিত দুর্যোগ সহনীয় ঘর। আগামী ১৩ অক্টোবর আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকায় কেন্দ্রীয় অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এসব ঘর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করবেন।

প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যে দেশের কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না। তার আলোকে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সে আলোকে দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণ কর্মসূচির আওতায় দেশব্যাপী ১৭ হাজার ৫টি ঘর নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। ইতোমধ্যে ঘরগুলোর নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে।

এতে ২ কক্ষবিশিষ্ট একটি সেমিপাকা ঘর হবে। সাথে কিচেন ও লেট্রিন থাকবে। প্রতিটি ঘর নির্মাণে ৩ লক্ষ টাকা করে ব্যয় ধরা হয়েছে। চট্টগ্রামের সাধারণ দুঃস্থ পরিবারের পাশাপাশি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর অধিবাসীরাও এ ঘর পাচ্ছেন। বিশেষত ঘূর্ণিঝড় ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত দুঃস্থ পরিবারকে এ ঘর প্রাপ্তিতে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে।

৩১২টি ঘরের মধ্যে মীরসরাইয়ে ১৮টি, ফটিকছড়িতে ২৪টি, সন্দ্বীপে ২৪টি, সীতাকুন্ডে ২৪টি, হাটহাজারীতে ১২টি, রাউজানে ১৮টি, রাঙ্গুনিয়ায় ১৮টি, বোয়ালখালীতে ১৮টি, আনোয়ারায় ২৪টি, পটিয়ায় ২৪টি, চন্দনাইশে ১৮টি, সতকানিয়ায় ১৮টি, লোহাগড়ায় ২৪টি, বাঁশখালীতে ৩০টি ও কর্ণফুলীতে ১৮টি পরিবার এ ঘর পাচ্ছেন।