আলতাফ হোসেন বাবু : নেতা নয় জনগণের সুখে-দু:খে, আপদে-বিপদে সবসময় সেবক হিসেবে পৌর ৭নং ওয়ার্ড বাসীর পাশে থাকতে চান কাউন্সিলর শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু।

সাতক্ষীরা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে আসন্ন সাতক্ষীরা পৌরসভা নির্বাচনে ৭নং ওয়ার্ডে আবারও বিপুল ভোটের মাধ্যমে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর কাউন্সিলর শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু বিজয়ী হবেন এমনটিই আশা করছেন ৭নং ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষ।

শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু সাতক্ষীরা পৌরসভার সাবেক কমিশনার মরহুম আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে এবং আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু শুধু একজন সমাজ সেবক নন তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নিবেদিত প্রাণ, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক ও সাতক্ষীরা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড বাসীর আশারআলো।

কাউন্সিলর শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা ডিজিটাল বাংলাদেশ ও পদ্মাসেতু বাস্তবায়নের রূপকার বিশ্ব মানবতার মমতাময়ী মা জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনায় মহামারি করোনার শুরু থেকে অদ্যবধি সাতক্ষীরা পৌর সভার ইটাগাছা, রইচপুর, বাগবাটিসহ ৭নং ওয়ার্ডের সর্বস্তরের নাগরিকদের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি, মাস্ক ও জীবানু নাশক স্প্রে বিতরণ করেছেন। লকডাউনে থাকা ৭নং ওয়ার্ড বাসীদের খাদ্য সহয়াতা দিয়েছেন। এছাড়া ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষে শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু পাড়া, মহল্লায় ও বাড়ি বাড়ি ক্যাম্পেন করেছেন।

জলাবদ্ধতা নিরশনে অত্র এলাকার সাধারণ মানুষদের সাথে নিয়ে কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন তিনি। পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডে শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু প্রথমবার কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে ১৫টি নতুন ড্রেন নির্মাণ, ১০জায়গায় রাস্তার পাইলিং, ৩০ টি স্থানে ইটের সোলিং রাস্তা, ২৫টি ডিপ টিউবওয়েল, ২২টি সাধারণ টিউবওয়েল, ২২ টি স্থানে হ্যালোজিং লাইট, ১০৯টি পোস্টখুটি, ১২টি বিদ্যুতের সোলার, ১৩০ টি বাল্ব স্থাপন করেছেন। এলাকার জলাবদ্ধা নিরশনে ২৬০ টি পাইপ বসানো উন্নয়ন বাস্তবায়ন করেছেন।

৭নং ওয়ার্ডে ৩টি পাকা রাস্তা ও ৪টি আরসিসি ঢালাই রাস্তা নির্মাণ করেছেন তিনি। ৬টি ময়লা ফেলার ডাস্টবিন নির্মাণ করেছেন। ঘর সংস্কারে ৬টি পরিবারের মাঝে ঢেই টিন বিতরণ করেছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র কার্যালয় থেকে প্রদত্ত নগদ অর্থ ২১জন হত-দরিদ্র মানুষকে প্রত্যেকে ৪হাজার টাকা করে বিতরণ করেছেন।

এলাকার বেকারত্ব ঘোচাতে ৫৪জন বেকার যুবক কে ব্যাটারী চালিত ইজিবাইকের লাইসেন্সের অনুমোদ দিয়েছেন। পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডে ৫৪২জনকে শিশু কার্ডের আওয়তায় এনেছেন। এছাড়া কাউন্সিলর শেখ হাহাঙ্গীর হোসেন কালু ৩৮৮জন কে বয়স্কভাতার কার্ড, ১১৯জনকে বিধবা ভাতা ও ১৮২জন প্রতিবন্ধিকে প্রতিবদ্ধি ভাতার কার্ড বিতরণ করেছেন। ১২জন শারীরিক প্রতিবদ্ধিকে ১২টি হুইল চেয়ার দিয়েছেন।

এছাড়া মহামারী করোনা মোকাবেলায়, জলাবদ্ধতায় নিমোজ্জিত, বিভিন্ন সময়ে প্রাকৃতিক দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ এবং ধর্মীয় অনুষ্ঠান উপলক্ষে দুস্ত পৌর নাগরিকদের মাঝে চাল, ডাল, আটা, তৈল, সাবানসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য বিতরণ করেছেন। কাউন্সিলর শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু পৌরসভা থেকে ৪১০ জন অসহায় শীতার্ত মানুষকে কম্বল দিয়েছেন। এছাড়া তিনি ব্যক্তিগত উদ্যোগে ৫ হাজারেরও বেশি দরিদ্র মানুষকে শীত নিবারনের জন্য কম্বল বিতরণ করেছেন।

কাউন্সিলর শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতির পাশাপাশি তিনি ইটাগাছা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি হিসেবে সততা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া তিনি দারুস সালাম মাদ্রাসা ও এতিম খানা এবং ইটাগাছা আইনুদ্দীন মহিলা মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সদস্য।

শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু বলেন, সরকারের পাশাপাশি আমি ব্যক্তিগত ভাবে আমার কাছে এলাকা অসহায় মানুষ আসলে আমি কাউকে খালি হাতে ফেরত দেইনা। প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকার সাধারণ মানুষ চিকিৎসা সেবা নিতে এবং ওষুধ কিনতে আমার কাছে সহযোগিতা চান। আমি আমার সাধ্যমত তাদের সাহায্য ও সহযোগিতার করার চেষ্টা করি।

তিনি জানান সাতক্ষীরা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডে ১০হাজার ৩৭জন ভোটার রয়েছে। আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী সাতক্ষীরা পৌরসভা নির্বাচনে ৭নং ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষের সমর্থনে ও মূল্যবান ভোটে পু:নরায় বিজয়ী হয়ে অত্র এলাকার উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখবো ইনশা-আল্লাহ।